Home / লাইফস্টাইল / উষ্ণতায় চুল–ত্বকের যত্ন

উষ্ণতায় চুল–ত্বকের যত্ন

গ্রীষ্মের দাবদাহ এখন কে না অনুভব করছে? ‘উফ, কী গরম’—কয়েক দিন ধরে যে তাপমাত্রা, তাতে এ কথা অনেকেই বলছেন। তো, এই গরমে প্রশান্তি পেতে চাইলে খানিকটা খেয়াল রাখা চাই চুল ও ত্বকের দিকে। রূপ ভালো তো মন ভালো!

গরমে আরাম পেতে বিশেষজ্ঞরা বলে দিয়েছেন নানা পদ্ধতির কথা। হারমনি স্পার স্বত্বাধিকারী ও রূপ বিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা পরামর্শ দিলেন বিভিন্ন ধরনের চুল ও ত্বকের ক্ষেত্রে ভিন্ন ধরনের রূপচর্চা করতে। ঘরে বসেই করা যাবে। সপ্তাহে অন্তত এক-দুই দিন সময় বের করে রূপচর্চা করতে পারেন।

এই গরমে ত্বকের যত্নে

তৈলাক্ত ত্বক

গরমে তৈলাক্ত ত্বক থেকে প্রচুর তেল বের হয়। ফলে ত্বক আরও গরম হয়ে যায়। ব্রণ দেখা দেয়। মুলতানি মাটি ১ চা-চামচ, গোলাপের পাপড়ির পেস্ট ১ চা-চামচ, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, কফিগুঁড়া ১ চা-চামচ ও মসুর ডাল ১ চা-চামচ একসঙ্গে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিতে পারেন। ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

স্বাভাবিক ত্বক

মধু ১ চা-চামচ, গাঁদা ফুলের পেস্ট ১ চা-চামচ, লেবুর রস ১ চা-চামচ ও সয়াবিনগুঁড়া ১ চা-চামচ একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট করে নিন। স্বাভাবিক ত্বককে স্বাভাবিক রাখতে হলেও যত্ন নিতে হয়। এই মিশ্রণ ত্বকে লাগাতে পারেন। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

শুষ্ক ত্বক

গরমে শুষ্ক ত্বক আরও যেন খসখসে, শুষ্ক, প্রাণহীন হয়ে যায়। এর থেকে বাঁচার জন্য এই মিশ্রণ তৈরি করে নিতে পারেন। মধু ১ চা-চামচ, কাঠবাদামের পেস্ট ২ চা-চামচ, দুধ ২ চা-চামচ ও চন্দন ২ চা-চামচ। এই মিশ্রণ ত্বককে মসৃণ, কোমল ও উজ্জ্বল করে।

মিশ্র ত্বক

মিশ্র ত্বক গরমে তৈলাক্ত হয়ে ওঠে। আবার কখনো মুখের চামড়াও উঠতে থাকে। সে জন্য কচি ডাবের শাঁস, কমলার রস ১ চা-চামচ, বেসন ২ চা-চামচ ও কালিজিরার তেল দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে লাগাতে হবে। এতে ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হবে।

গ্রীষ্মে চুলের চর্চা

যে ঋতুই চলুক না কেন, নানা জনের চুলে নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। একেক সমস্যার একেক সমাধান দিলেন রাহিমা সুলতানা।

● লেবুর রসের সঙ্গে ত্রিফলাচূর্ণ ও নারকেল তেল মিশিয়ে সপ্তাহে ২ দিন চুলে ব্যবহার করলে চুলের গোড়া শক্ত হয় এবং চুল দ্রুত বাড়ে।
● লেবুর রসের সঙ্গে টক দই ও ভাতের মাড় ব্যবহার করলে খুশকি দূর হয়।
● পেঁয়াজের রসের সঙ্গে জবা ফুল পেস্ট করে লাগালে চুল গজাতে সাহায্য করে।
● লেবুর রসের সঙ্গে চায়ের লিকার মিশিয়ে শ্যাম্পু শেষে ব্যবহার করলে চুল ঝলমলে ও সুন্দর হয়। কন্ডিশনিংয়ের জন্য আধা মগ পানিতে লেবুর রস ও চায়ের লিকার মিশিয়ে নিন। চুলে লাগিয়ে পরে একবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।
● নারকেল তেলের সঙ্গে কর্পূর মিশিয়ে চুলের গোড়ায় ম্যাসাজ করলে খুশকি দূর হয়।
● শ্যাম্পু ব্যবহারের পর কন্ডিশনিংয়ের জন্য ১ চামচ মেথি ১ লিটার পানিতে সারা রাত ভিজিয়ে রেখে ওই পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *